কোদাল দিয়ে পিটিয়ে বৃদ্ধকে হত্যা

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে আমির হোসেন (৬৫) নামে এক প্রতিবন্ধী বৃদ্ধকে কোদাল দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১৩ জুন) সকাল পৌনে ৭টায় উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়নের টামটা গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে। পুলিশ এ ঘটনায় মূল হত্যাকারীসহ পাঁচজনকে আটক করেছে।

এদিকে কোদাল দিয়ে পিটিয়ে হত্যার সিসিটিভিতে রেকর্ড ৪৮ সেকেন্ডের একটি ভিডিও মুহূর্তের মধ্যে সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে দেখা যায়, বাড়ির সামনে হুইল চেয়ারে বসে ছিলেন প্রতিবন্ধী আমির হোসেন। এ সময় হঠাৎ হাতে কোদাল নিয়ে তার ঘাড়ে জোরে আঘাত করেন নাছির। এ সময় আমির হুইল চেয়ার থেকে পড়ে যান। এরপর আরও জোরে জোরে কোদাল দিয়ে পেটাতে থাকেন নাছির। পরে সেখান থেকে নিজের বাড়িতে চলে যান নাছির। স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় আমির হোসেনকে উদ্ধারের কিছুক্ষণ পরই তার মৃত্যু হয়।

দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ আলমগীর ভূঁঞা জানান, টামটা গ্রামের পল্লি চিকিৎসক ওসমান গনি নাসিম এবং আমির হোসেনের দীর্ঘদিন যাবৎ জমিসংক্রান্তে বিরোধ চলে আসছিল। সম্পর্কে তারা আপন মামাতো-ফুপাতো ভাই। বিরোধের জের ধরেই মঙ্গলবার সকালে আমির হোসেন (৬৫)-এর বাড়ির সামনে তার ওপর হামলায় তিনি গুরুতর আহত হন। লোকজন তাকে উদ্ধার করে গৌরীপুর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, ঘটনার মূলহোতা পল্লী চিকিৎসক ওসমান গনি নাসিম (৫৫) সহ মো. শামীম ওসমান (৪৮), মো. শাহাদাৎ (৩৫), মো. সিয়াম (২৭) ও মো. সিহাব (২৯) কে আটক করা হয়েছে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

উল্লেখ্য, দুই বছর আগে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে পল্লী চিকিৎসক নাসিমের সাথে বিবাদের একপর্যায়ে প্রতিবন্ধী আমির হোসেনের ছেলে গিয়াস উদ্দিন (৩৫) মৃত্যুবরণ করেন। ওই সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে মর্মে ইউডি মামলা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *