দেশের প্রথম ভূমি সম্মেলন ২৯ মার্চ থেকে: ভূমিমন্ত্রী

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেছেন, ২৯ থেকে ৩১ মার্চ জাতীয় ভূমি সম্মেলন আয়োজন করতে যাচ্ছে ভূমি মন্ত্রণালয়। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভূমি মন্ত্রণালয়ের ভূমিকা তুলে ধরা এবং ভূমিসেবা ডিজিটালাইজেশনের ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জগুলো খুঁজে বের করে তা মোকাবিলায় করণীয় নির্ধারণ করতেই এ সম্মেলন।

আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ কথা বলেন ভূমিমন্ত্রী। এ সময় ভূমিসচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। দেশে এই প্রথমবারের মতো জাতীয় ভূমি সম্মেলন করা হচ্ছে।

ভূমিমন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে জাতীয় ভূমি সম্মেলন ২০২৩ এবং ভূমি মন্ত্রণালয়ের সাতটি উদ্যোগের উদ্বোধন করার ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছেন। মন্ত্রী বলেন, সাতটি উদ্যোগের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে জাতির পিতার স্মৃতিবিজড়িত লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে স্থাপন করা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্মৃতিস্তম্ভ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব গুচ্ছগ্রাম কমপ্লেক্স। বাকি ছয় উদ্যোগ হচ্ছে রেজিস্ট্রেশন-মিউটেশন আন্তসংযোগ, স্মার্ট ভূমি নকশা, স্মার্ট ভূমি রেকর্ডস, স্মার্ট ভূমি পিডিয়া, স্মার্ট ভূমিসেবা কেন্দ্র এবং ইউনিয়ন ভূমি অফিস।

সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে দেশে এক অভূতপূর্ব ভূমি সংস্কার কার্যক্রম চলছে। ভূমি সংস্কার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে চালু করা হয়েছে ই-নামজারি, ডিজিটাল ভূমি উন্নয়ন কর, ১৬১২২ কল সেন্টার, সোশ্যাল মিডিয়া ও কিয়স্কের মাধ্যমে ভূমিসেবা, ডিজিটাল সার্ভে, অনলাইনে জলমহালের আবেদন, ল্যান্ড ডেটা ব্যাংক, মর্টগেজ ডেটা ব্যাংক। এ ছাড়া ভূমিসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন আইন প্রণয়নের কাজ চলছে, সেই সঙ্গে চলছে পুরোনো আইন যুগোপযোগীকরণের কাজ।

ভূমিমন্ত্রী বলেন, ‘ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওপর দেশের জনগণের আস্থা ফিরে আসছে, এটাই আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জন। সাধারণ মানুষ বিশ্বাস করছেন, দেশের ভূমি ব্যবস্থাপনায় সত্যিই এক ইতিবাচক পরিবর্তন হচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *